বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ডিবি সূত্র জানায়, রাজধানীর বারিধারা ডিওএইচএসের নিউ মিরাকল ফিনটেক বিডি নামের প্রতিষ্ঠানটির ১৮ জন কর্মী বৃহস্পতিবার সকাল সাতটার দিকে একটি বাসে করে পুবাইলের অরণ্যবাস রিসোর্টের উদ্দেশে রওনা হন। কিন্তু তাঁরা সেখানে না পৌঁছানোতে স্বজনেরা খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন। বিকেলেও তাঁরা সেই রিসোর্টে না পৌঁছানোয় স্বজনেরা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন এবং বিভিন্ন থানায় গিয়ে তাঁদের খোঁজ করেন। পরে তাঁরা রাতে রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ে গেলে আটক হওয়ার বিষয়টি জানতে পারেন। পরে তাঁদের মধ্য থেকে ১১ জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

আদাবর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মাধব চৌধুরী বলেন, নিখোঁজ হওয়ার অভিযোগ নিয়ে দেবাশীষ নামের এক যুবকের বাবা দুলাল চন্দ্র দে থানায় এসেছিলেন। তাঁকে ঘটনাস্থলের থানায় যেতে বলা হয়েছে।

ডিবির একজন কর্মকর্তা প্রথম আলোকে বলেন, ‘বারিধারায় ডিওএইচএসের নিউ মিরাকল ফিনটেক বিডি প্রতিষ্ঠানটির মালিক চীনের কয়েকজন নাগরিক। তাঁরা এ দেশের কর্মীদের ব্যবহার করে দুই হাজার টাকা ঋণ দিয়ে এক মাসে চার হাজার টাকা নেয়। অনলাইন প্ল্যাটফর্মে অনুমোদন ছাড়াই বিদেশিরা মহজনি ব্যবসার মতো এ ব্যবসা করছে। এটার কোনো অনুমোদন নেই।’

জান্নাতুল ফেরদৌস ইতি নামের একজনের স্বজন বৃহস্পতিবার রাতে প্রথম আলোকে বলেন, সকাল সাতটায় ইতিকে অফিসের সামনে রেখে এসেছিলেন তিনি। এর ঘণ্টাখানেক পরে কথা হয়। তখন ইতি জানিয়েছিলেন তাঁরা উত্তরায়। পুবাইলের পথে গাড়ি চলছে। এরপর সারা দিন আর খোঁজখবর নেই। পরে বিভিন্ন সূত্রে খবর পেয়ে ডিবি কার্যালয়ে যান। জিজ্ঞাসাবাদের পর জান্নাতুল ফেরদৌসসহ ১১ জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়। তাঁরা সবাই বাসায় চলে গেছেন। প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনার সঙ্গে যুক্ত সাতজনকে ডিবি কার্যালয়ে আছেন।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন