default-image

অবৈধ উপায়ে অর্জিত অর্থে ব্যাংকের শেয়ার ক্রয় ও বিদেশে অর্থ পাচারের অভিযোগে বেসরকারি খাতের এনআরবি ব্যাংকের দুই পরিচালকের ব্যাংক হিসাবের তথ্য চেয়েছে দুদক। একই সঙ্গে তাঁদের বাবারও ব্যাংক হিসাবের তথ্য চাওয়া হয়েছে।

এনআরবির এই দুই পরিচালক হলেন নাফিহ রশিদ খান ও নাভিদ রশিদ খান। আর তাঁদের বাবা ব্যাংকটির শেয়ার হোল্ডার আমিনুর রশিদ খান। দুদকের সহকারী পরিচালক সিরাজুল হক সম্প্রতি তাঁদের ব্যাংক হিসাবের তথ্য চেয়ে বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটে (বিএফআইইউ) চিঠি পাঠিয়েছেন।

চিঠিতে নাফিহ রশিদ খান, নাভিদ রশিদ খান ও আমিনুর রশিদ খানের নিজ নামে এবং তাঁদের স্বার্থ–সংশ্লিষ্ট হিসাবের তথ্য, কেওআইসি প্রোফাইল, টিন সার্টিফিকেটসহ বিভিন্ন বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য চাওয়া হয়। যাবতীয় হিসাব বিবরণী ও তথ্য আগামী ৩০ জানুয়ারির মধ্যে বিএফআইইউর মহাব্যবস্থাপককে দুদকে জমা দেওয়ার সময় বেঁধে দেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন


দুদকে আসা অভিযোগে উল্লেখ রয়েছে, এনআরবি ব্যাংকের শেয়ার হোল্ডার আমিনুর রশিদ খান এবং তাঁর দুই সন্তান বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে ব্যাংকের বিপুল শেয়ারের মালিক হন। এ ছাড়া দুবাইতে ব্যাংকের দুই পরিচালকের নামে বাল্ক ট্রেড ইন্টারন্যাশনালসহ বেশ কিছু কোম্পানি রয়েছে। দুদকের অনুসন্ধান প্রক্রিয়ায় তিনজনের বিরুদ্ধে বিদেশে অর্থ পাচারের অভিযোগ রয়েছে। অভিযোগে বলা হয়, আমিনুর রশিদ খান ও তাঁর দুই সন্তানের আয়ের সঙ্গে উপার্জিত সম্পদেরও সামঞ্জস্য নেই।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন