default-image

চট্টগ্রামে অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক কিশোরীকে মারধর করে ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে করা মামলায় এক তরুণীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাঁর নাম তাহমিনা সিমি (১৯)। গতকাল শনিবার রাতে নগরের পতেঙ্গা থানার পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তার করে।

ওই কিশোরীর মা আজ রোববার মুঠোফোনে অভিযোগ করে বলেন, তাঁর স্বামী নেই। একমাত্র মেয়েকে তিনি অনেক কষ্টে বড় করছেন। মেয়ের সঙ্গে তাহমিনার বন্ধুত্ব হয়। এই সুযোগে তাহমিনা তাঁর মেয়েকে অনৈতিক নানা কাজে জড়িত হতে প্রস্তাব দিতে থাকেন। তাহমিনা নিজেও অনৈতিক কাজে জড়িত বলে অভিযোগ করেন তিনি।
ওই কিশোরীর মা আরও বলেন, ৪ মার্চ তাঁদের বাসা থেকে কাছে পতেঙ্গা সমুদ্রসৈকতে বেড়াতে যায় তাঁর মেয়ে। সেখানে নির্মাণাধীন হোটেলের পাশে একা পেয়ে মেয়েকে মারধর করেন তাহমিনা। তাহমিনার নেতৃত্বে কয়েকজন ছেলেও মেয়েকে মারধর করে। মারধরের দৃশ্য ভিডিও করে ছড়িয়ে দেওয়া হয়। সেটি ভাইরাল হয়।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানায়, গত বছরের ২৪ আগস্ট নগরের একটি এলাকায় বাসায় ঢুকে এক তরুণীকে মারধর করেছিলেন তাহমিনা ও তাঁর গ্রুপ। পরে ওই তরুণীর মামলায় একই বছরের ২৭ আগস্ট দুই সহযোগীসহ গ্রেপ্তার হয়েছিলেন তাহমিনা। পরে তাঁরা জামিনে ছাড়া পান।

পতেঙ্গা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জোবাইর সৈয়দ আজ দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, এক কিশোরীকে মারধরের ভিডিও ভাইরাল হওয়ায় ঘটনায় করা মামলায় এক তরুণীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে রিমান্ডের আবেদন করা হবে।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন