বিজ্ঞাপন

২০২০ সালের ১১ মে স্থানীয় দৈনিক মেহেরপুর প্রতিদিন পত্রিকায় গাংনীর সাবেক সাংসদ ‘মকবুলের কাণ্ড, ২৬ বছর দখলে রেখেছে পরের বাড়ি’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। পরে মকবুল হোসেনের ভাগনে সবুজ হোসেন বাদী হয়ে গাংনী থানায় ওই পত্রিকার প্রকাশক এ এস এম ইমন, সম্পাদক ইয়াদুল মোমিন ও যুগ্ম সম্পাদক আল আমিনের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি করেন।

সাবেক সাংসদ মকবুল হোসেনের একান্ত সহকারী সাইফুজ্জান সিপু প্রথম আলোকে বলেন, মকবুল হোসেন দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতি করছেন। তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। সাধারণ মানুষের কাছে তিনি জনপ্রিয়। স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েও তিনি দুবার নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁকে হেয় করার জন্য মিথ্যা ও বানোয়াট প্রতিবেদন তৈরি করার কারণে মামলা করা হয়েছিল।

গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলুর রহমান বলেন, সাংবাদিক আল আমিনের নামে আদালতের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ছিল। তাঁকে আজ সকালে বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন