default-image

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার ডিগ্রিরচর পয়স্তি গ্রামে গাছের ডাল কাটার অপরাধে মো. রুবেল মিয়া (১৫) নামের এক স্কুলছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় পুলিশ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে। গতকাল সোমবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সে মারা যায়।

নিহত রুবেল ডিগ্রিরচর পয়স্তি গ্রামের মো. আমিন মোল্লার ছেলে। সে ডিগ্রিরচর উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র ছিল। এ ঘটনায় পুলিশ একই গ্রামের মো. এমদাদুল হক (২৫) ও মো. বাবু (২০) নামের দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সন্ধ্যার দিকে রুবেল বন্ধুদের নিয়ে মো. নূর ইসলামের বাড়ির পাশে ব্যাডমিন্টন খেলতে যায়। পাশে একটি গাছ ছিল। সেই গাছের একটি ডাল কেটে দেয় রুবেল। ডাল কাটার জন্য তাকে বেধড়ক পেটানো হয়। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে এবং পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল গভীর রাতে সে মারা যায়। পুলিশ খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে আজ সকালে শেরপুর জেলার চরবাবনা গ্রাম থেকে ওই দুজনকে গ্রেপ্তার করে।

জামালপুরের সহকারী পুলিশ সুপার (ইসলামপুর সার্কেল) মো. সুমন মিয়া প্রথম আলোকে বলেন, তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে ওই কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নিহত কিশোরের বাবা বাদী হয়ে ইসলামপুর থানায় ১৪ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেছেন। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন