নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (প্রসিকিউশন) কামরুল হাসান প্রথম আলোকে বলেন, নগরের কোতোয়ালি থানা-পুলিশ মাদক মামলার এই আসামিকে আদালত ভবনের দ্বিতীয় তলায় কোতোয়ালি সেরেস্তায় নিয়ে আসে। আসামির নাম-ঠিকানা লিপিবদ্ধ করার পর পুলিশ তাঁকে নিচতলায় মহানগর হাজতখানায় নিয়ে যাচ্ছিলেন। পথে আসামি আবুল কালাম পুলিশের হাত থেকে পালিয়ে যান।

পুলিশ সূত্র জানায়, আজ রোববার নগরের কোতোয়ালি থানার কদমতলী মোড়ের উত্তর পাশে ফরিদের চা-দোকান থেকে ১ হাজার ৫০টি ইয়াবা বড়িসহ আবুল কালামকে গ্রেপ্তার করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের গোয়েন্দা শাখা। এ ঘটনায় গোয়েন্দা শাখার উপপরিদর্শক টিপু সুলতান বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন। পরে আসামিকে কোতোয়ালি থানা-পুলিশ আদালতে নিয়ে যায়।