default-image

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার হয়ে জামিনে থাকা কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর নির্যাতন এবং হেফাজতে মৃত্যু (নিবারণ) আইনে মামলার আবেদন করেছেন।

আজ বুধবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে তিনি মামলার আবেদন করেন। আদালতের কাছে তিনি তাঁর ওপর নির্যাতনের বিচার চেয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক কে এম ইমরুল কায়েস আজ বেলা দেড়টার পর থেকে প্রায় আধা ঘণ্টা কিশোরের জবানবন্দি রেকর্ড করেন। সেখানে কিশোর তাঁর ওপর হওয়া নির্যাতনের বর্ণনা দেন। কিশোরের আইনজীবী জ্যোতির্ময় বড়ুয়া প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

আদালতের কাছে কিশোর বলেন, গত বছরের ২ মে সন্ধ্যা পৌনে ছয়টার দিকে তাঁর কাকরাইলের বাসায় ১৭–১৮ জন লোক এসে তাঁকে প্যান্ট–শার্ট পরে বাইরে আসতে বলেন। এ সময় তাঁর মুঠোফোন ও কম্পিউটার জব্দ করেন ওই লোকেরা। তাঁদের মধ্যে একজনের নাম জসিম বলে তিনি তখন শুনতে পান। কিশোর ওই লোকদের কাছে জানতে চান, কী অপরাধে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে এবং কোনো গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে কি না। তখন তাঁকে বলা হয়, ‘নিচে গিয়ে গাড়িতে ওঠ, পরে সব জানতে পারবি।’

default-image

এরপর ৫ মে র‌্যাব হেফাজতে নেওয়ার আগপর্যন্ত তাঁকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে নির্যাতন করা হয় বলে কিশোর আদালতের কাছে অভিযোগ করেন।

কিশোর নির্যাতনের বর্ণনা দিয়ে আদালতের কাছে বিচার চান। কিশোরের মামলার আবেদনের বিষয়ে দু–এক দিনের মধ্যে আদেশ দেওয়া হবে বলে আদালত জানান।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন