default-image

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা থামিয়ে বাবার কাছ থেকে এক তরুণীকে (১৯) ছিনিয়ে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে মামলা হয়েছে। শুক্রবার রাতে ওই তরুণীর বাবা বাদী হয়ে সেনবাগ থানায় একজনের নাম উল্লেখ করে তিনজনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, চার মাস আগে ওই তরুণীর বিয়ে হয়েছে ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলায়। মেয়েকে নিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় বাবা ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় করে নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলায় যাচ্ছিলেন। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে মো. বাবুলের (২২) নেতৃত্বে তিন বখাটে তাদের অটোরিকশার গতিরোধ করে। বখাটেরা অটোরিকশায় অবৈধ জিনিস আছে বলে চালক ও যাত্রী বাবা-মেয়েকে মারধর শুরু করেন। পরে তিন বখাটে তরুণীকে টেনে-হিঁচড়ে পাশের বাগানের ভেতর নিয়ে যান। তিনজন মিলে তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে তাঁরা তরুণীকে গলাটিপে হত্যার চেষ্টা করেন। বাবা ও মেয়ের চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন বাগানের দিকে এগিয়ে গেলে বখাটেরা পালিয়ে যান। পরে লোকজন বাগান থেকে তরুণীকে উদ্ধার করে স্থানীয় নবীপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানের মাধ্যমে থানায় পাঠান।

বাবার কাছ থেকে তরুণীকে ছিনিয়ে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা ও গলাটিপে হত্যার চেষ্টার অভিযোগে মামলার খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল বাতেন মৃধা। তিনি বলেন, বাবুলসহ তিনজনকে আসামি করে থানায় মামলা হয়েছে। এখনো কাউকে আটক করা যায়নি। আসামিদের আটকের চেষ্টা চলছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0