বিজ্ঞাপন

ছাত্রটির নানা ওই মাদ্রাসাশিক্ষকের উপযুক্ত শাস্তি দাবি করেন।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান প্রথম আলোকে বলেন, ‘গতকাল রাত ৯টার দিকে এক মাদ্রাসাছাত্রের স্বজনের কাছ থেকে ধর্ষণের বিষয়টি শোনার সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে খবর পাঠাই। এরপর পুলিশ অভিযুক্ত ওই মাদ্রাসাশিক্ষককে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে গেছে।’

লোহাগাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাকের হোসাইন মাহমুদ প্রথম আলোকে বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ওই শিক্ষক মাদ্রাসাছাত্রকে একাধিকবার ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন। এ ঘটনায় ছাত্রের নানা বাদী হয়ে গতকাল রাতেই নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন। আজ বৃহস্পতিবার ওই শিক্ষককে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন