default-image

সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে তরুণী ধর্ষণ মামলার গ্রেপ্তার আসামি রবিউল ইসলামের (২৫) পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। সোমবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে সিলেটের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২-এর বিচারক সাইফুর রহমান এ আদেশ দেন।
এর আগে দুপুর ১২টার দিকে একই আদালত মামলার এজাহারভুক্ত প্রধান আসামি সাইফুর রহমান ও অর্জুন লস্করের পাঁচ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
সিলেট মহানগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) অমূল্য কুমার চৌধুরী বলেন, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আসামিদের সাত দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেছিলেন। পরে আদালত পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
এর আগে তরুণী ধর্ষণ মামলায় নাম উল্লেখ করা ছয় আসামির মধ্যে চারজনকে রোববার হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জের পৃথক স্থান থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর মধ্যে মামলার প্রধান আসামি সাইফুর রহমানকে সুনামগঞ্জ থেকে এবং বাকি তিন আসামি অর্জুন লস্কর, রবিউল ইসলাম ও শাহ মো. মাহবুবুর রহমানকে হবিগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এজাহারভুক্ত দুই আসামি তারেকুল ইসলাম ও মাহফুজুর রহমান পলাতক আছেন। তাঁরা ছাত্রলীগের কর্মী হিসেবে পরিচিত।

বিজ্ঞাপন

১২৮ বছরের পুরোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মুরারিচাঁদ (এমসি) কলেজ। সিলেট-তামাবিল সড়কের পাশে এর অবস্থান। কলেজের ফটকের ভেতরের মাঠে অনেকে বেড়াতে যান। শুক্রবার সন্ধ্যায় এক দম্পতি এমসি কলেজ এলাকায় বেড়াতে যান। স্বামী রাস্তার পাশে গাড়ি থামিয়ে যান সিগারেট কিনতে। ফিরে এসে দেখেন স্ত্রীকে উত্ত্যক্ত করছেন কয়েকজন তরুণ। স্বামী প্রতিবাদ করলে মারধর করে তাঁদের দুজনকে গাড়িসহ জোর করে তুলে নিয়ে যান ওই তরুণেরা। এরপর তরুণী কলেজের ছাত্রাবাসে গণধর্ষণের শিকার হন।

মন্তব্য পড়ুন 0