টিটু প্রধানীয় নামের এক ব্যক্তির কাছ থেকে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সদস্য পরিচয়ে ৩৮ ভরি ১৪ আনা স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগে গতকাল সোমবার দারুস সালাম থানায় একটি মামলা হয়।

মামলায় বলা হয়, টিটু প্রধানীয় রাজধানীর তাঁতীবাজার এলাকার ধানসিঁড়ি চেইন অ্যান্ড বল হাউস নামের একটি স্বর্ণালংকারের দোকানে চাকরি করেন। গত রোববার সকালে একটি স্কুলব্যাগে করে স্বর্ণালংকার নিয়ে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর ও সখীপুরের বিভিন্ন সোনার দোকানে পৌঁছে দিতে যাচ্ছিলেন। তিনি তাঁতীবাজার থেকে গাবতলী এসে বাসের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। তখন অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তি ডিবি পরিচয় দিয়ে তাঁর নাম, ঠিকানা ও পেশা জানতে চান। জবাবে নিজের পরিচয় দেন টিটু প্রধানীয়। তাঁর কাছে ২৬ লাখ টাকার স্বর্ণালংকার রয়েছে বলেও জানান। পরে ওই ব্যক্তি স্বর্ণালংকারের কাগজপত্র দেখতে চান।

যখন ওই ব্যক্তির সঙ্গে টিটু কথা বলছিলেন, তখন আরও চার-পাঁচজন সেখানে আসেন। তাঁরা জোর করে স্বর্ণালংকারের ব্যাগ ছিনিয়ে নেন। এরপর টিটুকে তেজগাঁও থানায় নিয়ে যাওয়ার কথা বলে একটি মোটরসাইকেলে উঠিয়ে মিরপুর বেড়িবাঁধ এলাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে তাঁকে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তুলে বিজয় সরণি এলাকায় এসে তাঁরা নেমে যান।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই বায়েজীদ মোল্লা প্রথম আলোকে বলেন, টিটু প্রধানীয় মোটরসাইকেলের নম্বর টুকে রেখেছিলেন। ওই মোটরসাইকেলটি ব্যবহার করেন এএসআই জাহিদুল ইসলাম। তাঁর হেফাজত থেকে মোটরসাইকেলটি জব্দ করা হয়েছে। এটি তাঁর ব্যক্তিগত মোটরসাইকেল বলে দাবি করেছেন। তবে বিআরটিএ থেকে মোটরসাইকেলের মালিকানার বিষয়টি এখনো যাচাই করা হয়নি।
ছিনতাই হওয়া স্বর্ণালংকার উদ্ধারের চেষ্টা চলছে বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন