অটোরিকশা ছিনতাই করতে লতিফকে দুর্বৃত্তরা খুন করে থাকতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ। তবে ওসি পারভেজ বলেন, এ বিষয়ে এখনই নিশ্চিত করে কিছু বলা সম্ভব নয়।

ময়নাতদন্তের জন্য লতিফের লাশ শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, লতিফ পরিবার নিয়ে মিরপুর-১২ নম্বরের ট–ব্লক এলাকার একটি বস্তিতে থাকতেন। তাঁর বিষয়ে বিস্তারিত জানার চেষ্টা চলছে। লতিফকে হত্যার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন