ছয়জনকে গ্রেপ্তারের বিষয় বিস্তারিত জানাতে আজ সোমবার রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে ডিবির প্রধান অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বলেন, প্রবাসীদের ইমো আইডি হ্যাক করে আসছিলেন চক্রের সদস্যরা। ইমো আইডি হ্যাক করার জন্য তাঁদের প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন। আরেকটি চক্রের কাছ থেকে তাঁরা এই প্রশিক্ষণ পান।

ডিবি বলছে, কাতারপ্রবাসী কাসেমের বড় ভাই নুরুল ইসলামের অভিযোগের ভিত্তিতে তারা অনুসন্ধান শুরু করে। একপর্যায়ে তারা চক্রটির সন্ধান পায়।

ডিবি বলছে, প্রবাসীদের ইমো আইডি হ্যাক করে পরিবারের সদস্যদের কাছে ফোন করতেন চক্রের সদস্যরা। প্রবাসী ব্যক্তি হাসপাতালে ভর্তি আছেন—এমন কথাসহ নানা প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে পরিবারের কাছে টাকা তাঁরা টাকা হাতিয়ে নিতেন।