default-image

র‌্যাব-৭ চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক (গণমাধ্যম) নুরুল আবসার প্রথম আলোকে বলেন, গ্রেপ্তার মশিউর স্বনামধন্য ও খ্যাতনামা মুঠোফোন কোম্পানিগুলোর জনপ্রিয়তাকে পুঁজি করে ১৩টির অধিক ভুয়া ফেসবুক পেজ ও ওয়েবসাইট খুলে নোয়াখালীর সুধারাম থানার মাস্টারপাড়া পাটোয়ারী বাড়ি মসজিদসংলগ্ন একটি বিল্ডিংয়ের কক্ষে অবস্থান করে দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করে আসছেন।

নুরুল আবসার বলেন, একটি মুঠোফোন কোম্পানি লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পর অভিযান শুরু করে র‌্যাব। গতকাল রাতে উপস্থিতি টের পেয়ে মশিউর পালিয়ে যান। পরে তাঁর কক্ষ থেকে দুটি আইপি টেলিফোন, একটি করে রাউটার, মনিটর, সিপিইউ, কি–বোর্ড, মাউস, চেক বই, ভিসা কার্ড, কার ব্যাগ, দুটি ভিজিটিং কার্ড ও ১৩ হাজার ১৯০ টাকা জব্দ করে। পরে নগরের পতেঙ্গা এলাকা থেকে মশিউরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে মশিউর স্বীকার করেন, পাঁচ মাস আগে আয়ারল্যান্ডে একজন প্রবাসী বাংলাদেশির কাছ থেকে অনলাইনের মাধ্যমে ফেসবুক মার্কেটিং এবং ওয়েব ডিজাইনের কাছ শেখেন তিনি।

এরপর ১৩টির অধিক ভুয়া ফেসবুক পেজ ও ওয়েবসাইট ব্যবহার করে বিভিন্ন মুঠোফোন কোম্পানির বিজ্ঞাপন দিয়ে অস্বাভাবিক মূল্য ছাড়ের প্রলোভনে মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’-এর মাধ্যমে গ্রাহকদের কাছ থেকে বিপুল অর্থ হাতিয়ে নেন। এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন