গ্রেপ্তার দুজন হলেন, মো. সামিউল ইসলাম ও মো. নাইম হোসেন। এ সময় তাঁদের কাছ থেকে জালিয়াতির কাজে ব্যবহার করা একটি ল্যাপটপ, দুটি মুঠোফোন, সাতটি সিল ও বেশ কিছু জাল পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সনদ জব্দ করা হয় বলে জানিয়েছে ডিবি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ডিবি কার্যালয়ে এ বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ। তিনি বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, ২০১৯ সাল থেকে এই চক্রের সদস্যরা এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশে যেতে ইচ্ছুক এমন লোকজনকে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সনদ করে দেওয়ার কথা বলে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন।

সম্প্রতি এই চক্র ৩০ জনকে রোমানিয়ায় পাঠানোর জন্য চুক্তি করে বলে জানান হারুন অর রশীদ। তিনি বলেন, ওয়ার্ক পারমিট পাওয়ার জন্য তাঁরা প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের সঙ্গে জাল পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সনদ জমা দেন। সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান ওই সনদগুলো যাচাই করে জানতে পারে সেগুলো জাল ছিল।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন