বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ছাত্র অধিকার পরিষদের চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাবেক সমন্বয়ক মুহাম্মদ জসিম উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ার জন্য শুক্রবার বেলা সাড়ে তিনটা থেকে নেতা-কর্মীরা বিমানের চট্টগ্রাম কার্যালয়ের সামনে জড়ো হতে থাকেন। কর্মসূচি শুরুর পরপরই ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা করেন। ছাত্রলীগের হামলার মুখে সংগঠনের নেতা-কর্মীরা বিপ্লব উদ্যানের সামনে চলে আসেন। সেখানে হামলা হয়। এ সময় পুলিশ উপস্থিত থাকলেও, নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করে।

পুলিশ হামলাকারীদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নিলেও উল্টো ছাত্র অধিকার পরিষদের চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক রেদোয়ান সিদ্দিকীকে আটক করে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করেন মুহাম্মদ জসিম উদ্দিন। তিনি বলেন, হামলাকারীরা চট্টগ্রামের সরকারি হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী।

চট্টগ্রাম নগর যুব অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক আবসার উদ্দিন, ছাত্র অধিকার পরিষদের আন্তর্জাতিক-বিষয়ক সম্পাদক মুনতাসির মাহমুদ, শ্রমিক অধিকার পরিষদের চট্টগ্রামের সহসমন্বয়ক মোহাম্মদ বাবুসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন। তাঁরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন বলে জানান জসিম উদ্দিন।

তবে হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন হাজী মুহম্মদ মুহসীন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মায়মুন উদ্দিন। তিনি দাবি করেন, হামলার বিষয়ে তাঁদের কোনো নেতা-কর্মী জড়িত নন।

ঘটনাস্থলে পাঁচলাইশ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবদুল মান্নান শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রথম আলোকে বলেন, ২ নম্বর গেটের বিপ্লব উদ্যান এলাকায় দুই পক্ষের মধ্য হাতাহাতি ঘটনা ঘটে। এ সময় রেদোয়ান সিদ্দিকী নামের একজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার বিষয়ে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন