মামলার বিবরণীতে জানা যায়, গতকাল বুধবার দিবাগত রাতে বামনী ইউনিয়নের সাগরদী গ্রামে ঘোরাফেরা করছিলেন রাজেশ। এ সময় স্থানীয় ব্যক্তিদের সন্দেহ হলে তাঁর পরিচয় জানতে চাওয়া হয়। কিন্তু তিনি বাংলা ভাষা বুঝতে পারছিলেন না। হিন্দি ভাষায় কথা বলছিলেন। পরে তাঁরা পুলিশকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে গিয়ে রাজেশকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় তারা।

রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিপন বড়ুয়া বলেন, চার দিন আগে যশোর সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন রাজেশ। ঘুরতে ঘুরতে তিনি রায়পুর চলে আসেন। তবে কী কারণে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছেন বা রায়পুর এসেছেন, জানতে চাইলে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন