আহত নওয়াব মিয়ার ছোট ভাই ইয়াকুব মিয়া বলেন, কোপা আমেরিকা ফুটবল টুর্নামেন্টে ব্রাজিল বনাম পেরুর মধ্যকার সেমিফাইনাল খেলা শেষে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে ব্রাজিল ফুটবল দলের সমর্থক রেজাউল ইসলামের সঙ্গে আর্জেন্টিনার ফুটবল দলের সমর্থক জীবন মিয়ার কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হলে স্থানীয়রা তাদের নিবৃত্ত করেন।

এরপর মঙ্গলবার বিকেল পাঁচটার দিকে ব্রাজিল সমর্থক রেজাউলের চাচা নওয়াব মিয়া দামচাইল বাজার এলাকার জমিতে গরুর জন্য ঘাস কাটতে যান। সকালের ঘটনার জেরে আর্জেন্টিনার সমর্থক জীবন মিয়া ও তার সহযোগী আব্দুর রহমান ও সেলিম মিয়াসহ ৪-৫ জন যুবক তাঁকে একা পেয়ে মারধর করেন। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে গেলে তারা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান। রাত সাড়ে আটটার দিকে গ্রামের লোকজন গ্রামে চিকিৎসার জন্য নওয়াবকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ফাইজুর রহমান জানান, আহত নওয়াব মিয়ার মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাঁকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ এমরানুল ইসলাম জানান, ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা সমর্থকদের মধ্যে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। বিকেলে এক পক্ষের সমর্থক আরেক পক্ষের সমর্থকের চাচাকে একা পেয়ে মারধর করেন। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে এ বিষয়ে রাত পর্যন্ত কেউ কোনো অভিযোগ করেনি।