default-image

পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলার খেজুরতলা গ্রামের একটি ঘেরের জমি থেকে ১৪টি গাঁজার গাছ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই জমির মালিক উপজেলার শেখমাটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. বাবুল খান।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার শেখমাটিয়া ইউনিয়নের খেজুরতলা গ্রামে বাবুল খানের মালিকানাধীন একটি মাছের ঘের রয়েছে। ঘেরের পাশে জমিতে সবজি চাষ করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে একদল পুলিশ সবজিখেতে অভিযান চালিয়ে ১৪টি গাঁজার গাছ উদ্ধার করে।

নাজিরপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) দেলোয়ার হোসেন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই জমিতে গাঁজা চাষের খবর পান। সেখানে গিয়ে দেখা যায়, সবজির সঙ্গে গাঁজা চাষ করা হয়েছে। এরপর ১৪টি গাঁজাগাছ উদ্ধার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

শেখমাটিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা এহসানুল কবির বলেন, ইউপি সদস্য বাবুল খানের ওই জমিতে দীর্ঘদিন ধরে গাঁজা চাষ হচ্ছে। কয়েক দিন আগেও ওই বাগান থেকে কিছু গাঁজাগাছ কেটে বিক্রি করা হয়েছে।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও শেখমাটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান বাবুল খানের দলীয় পরিচয় নিশ্চিত করেছেন।

যোগাযোগ করা হলে ইউপি সদস্য মো. বাবুল খান মুঠোফোনে বলেন, সাত থেকে আট বছর ধরে ওই জমিতে তাঁর ভগ্নিপতি মো. মনির ডাকুয়া সবজি চাষ করছেন। কেউ তাঁদের অজান্তে ওই জমিতে গাঁজা চাষ করতে পারে।
মো. মনির ডাকুয়ার মুঠোফোন বন্ধ থাকায় তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি।

নাজিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আশ্রাফুজ্জামান বলেন, সবজিখেত থেকে গাঁজার গাছ উদ্ধারের বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। গাঁজা চাষের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন