পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানিয়েছেন, এক সপ্তাহ আগে বাহার উদ্দিনের ঘরে পানি ওঠে। পরে তিনি পরিবারের সদস্যদের নিয়ে স্থানীয় একটি আশ্রয়কেন্দ্রে ওঠেন। গতকাল বুধবার বিকেলে বাহার নিজের তলিয়ে যাওয়া ঘর দেখতে যান। এরপর পরিবারের সদস্যদের মুঠোফোনে জানান, বাড়িতেই তিনি রাত্রিযাপন করবেন।

আজ সকালে বাহারের খোঁজ না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে এসে দেখেন তাঁর লাশ পানিতে ভাসছে। পরে পরিবারের সদস্যরা বেলা ১১টার দিকে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় উদ্ধার করেন।

বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিল্লোল রায় প্রথম আলোকে জানান, বাহার মৃগী রোগী ছিলেন বলে পরিবারের সদস্যদের মাধ্যমে জানা গেছে। পানিতে তলিয়ে গিয়ে বাহারের মৃত্যু হয়েছে বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে। ময়নাতদন্তের জন্য তাঁর লাশ সিলেটের এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন