বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আসিয়া বেগম নামের একজন বলেন, ‘জীবনে ভাবছি না নিজের ঘরে ঈদ করতে পারমু। প্রতিবছর কেউর না কেউর (কারও না কারও) দুয়ারে গিয়া থাকতাম একটু মাংসের আশায়। এইবার আল্লায় মুখ তুলিয়া চাইছইন। নতুন ঘরে প্রথম ঈদ করলাম। এর মতো আনন্দের কিছু নাই।’

মোহাজিরাবাদ আশ্রয়ণ প্রকল্পে একটি ঘর পেয়েছে সনাতন ধর্মাবলম্বী একটি পরিবার। এই পরিবারের প্রধান বীরাঙ্গনা শীলা গুহ বলেন, উপজেলা থেকে এখানে কোরবানির জন্য একটি গরু দেওয়া হয়েছে। তাদের দেওয়া হয়েছে দুটি মুরগি। এতে তাঁরাও উৎসবের আমেজ পেয়েছেন।

আশিদ্রোন ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য ফারুক আহমেদ বলেন, প্রকল্প এলাকায় বসবাসকারীদের জীবনযাপনে বেশ পরিবর্তন এসেছে। ফলে এবারের ঈদটাও তাঁদের কাছে অন্য রকম। শিশু থেকে বৃদ্ধ—সবার মধ্যেই ঈদের আনন্দ ছড়িয়ে গেছে।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নজরুল ইসলাম বলেন, যাঁরা প্রকল্পের ঘর পেয়েছেন, তাঁরা নিজেরা স্বাবলম্বী হয়ে আগামী বছর সবাই মিলে কোরবানি দিতে পারবেন বলে তাঁর আশা।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন