বিজ্ঞাপন

স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ, সড়ক ও জনপথ (সওজ) কর্তৃপক্ষ মরিচ্চাপ নদের ওপর চাপড়া সেতু দুর্বল হয়ে পড়ায় ১০ টনের বেশি মালামাল বহনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। এরপরও ইটভাটার ট্রাকচালকেরা তা মানছিলেন না। সকালে উপজেলার শ্রীকলস গ্রামের আবদুস সামাদের এমএমবি ইটভাটা থেকে ইট বোঝাই করে তিনটি ট্রাক সাতক্ষীরার দিকে রওনা দেয়। এ সময় স্থানীয় লোকজন সেতুর ওপর দিয়ে না যাওয়ার জন্য ট্রাকচালকদের বলেন। তাঁরা নিষেধ না শুনে ট্রাক নিয়ে ওই সেতুর ওপর দিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। প্রথম ট্রাকটি কোনো রকমে পার হয়ে গেলেও দ্বিতীয় ইটভর্তি ট্রাকটি ওই সেতুর মাঝামাঝি আসার পর বিকট শব্দে সেতুর পাটাতন ভেঙে নদীর চরে পড়ে যায়। এরপর সেখানে সব ধরনের যানবাহন পারাপার বন্ধ হয়ে যায়।

সড়ক ও জনপথ কর্তৃপক্ষ মরিচ্চাপ নদের ওপর চাপড়া সেতু দুর্বল হয়ে পড়ায় ১০ টনের বেশি মালামাল বহনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। এরপরও ইটভাটার ট্রাকচালকেরা তা মানছিলেন না।

দুর্ঘটনায় পতিত ট্রাকটির চালক সাতক্ষীরা শহরের ইটাগাছার নাইমুর রহমান বলেন, তাঁর ট্রাকে প্রায় ১৩ টন ওজনের ইট ছিল। প্রথম ট্রাকটিতে প্রায় ১৮ টন ইট বোঝাই ছিল। ওই গাড়িটি যাওয়ার পরপরই তিনি গেলে দুর্ঘটনায় পড়ে যান। তবে এতে তাঁদের কারও কোনো ক্ষতি হয়নি। তিনি বলেন, এ রকম মালামাল নিয়ে তাঁরা নিয়মিত সেতুর ওপর দিয়ে যাতায়াত করে থাকলেও এর আগে কোনো সমস্যা হয়নি।

এ ব্যাপারে সাতক্ষীরা সওজ বিভাগের সহকারী প্রকৌশলী জিয়াউর রহমান বলেন, তাঁরা থানায় প্রাথমিকভাবে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। ট্রাকের মালিক ও চালকের বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণের মামলা করবেন। পাশাপাশি যোগাযোগ চালু করার জন্য দ্রুত সময়ে মধ্যে সেতুর পাটাতন মেরামতের ব্যবস্থা করবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন