বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে একজন যাত্রী নষ্ট টিভি মেরামত করতে শহরের কেন্দ্রীয় মসজিদ মার্কেটে আসার জন্য তাঁর রিকশায় ওঠেন। তিনি কেন্দ্রীয় মসজিদ মার্কেটের (জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ের) সামনে এসে সড়কে রিকশাটি দাঁড় করিয়ে রেখে নষ্ট টিভিটি পৌঁছে দিতে যাত্রীর সঙ্গে টিভির মেকারের দোকানে যান। তিনি সেখান থেকে ফিরে এসে দেখেন, রিকশাটি নেই। অনেক খোঁজাখুঁজির তিনি রিকশাটি আর পাননি।

রিকশা চালিয়ে সংসার ও ঋণের কিস্তি দিচ্ছিলাম। রিকশাটি চুরি হওয়ায় আমার ক্ষতি হয়ে গেল।
ফরিদ হোসেন, রিকশাচালক, জয়পুরহাট

রিকশাটি হারিয়ে শহরের নতুন হাট এলাকায় বিষণ্ন মনে দাঁড়িয়ে ছিলেন ফরিদ। লালন হোসেন নামের স্থানীয় এক তরুণ এ সময় দাঁড়িয়ে থাকা ফরিদের ছবি তুলে ফেসবুকে দেন। সঙ্গে রিকশা চুরির ঘটনার কথাও লেখেন।

ফরিদ হোসেনের বাড়ি শহরের নতুনহাট এলাকায়। তিনি বলেন, ‘কয়েক মিনিটের মধ্যে আমার রিকশাটি চুরি হয়েছে। রিকশা চালিয়ে সংসার ও ঋণের কিস্তি দিচ্ছিলাম। রিকশাটি চুরি হওয়ায় আমার ক্ষতি হয়ে গেল।’

লালন হোসেন বলেন, ফরিদ চুরি যাওয়া রিকশাটি খুঁজতে শহরের নতুন হাটে এসেছিলেন। সেখানে তিনি বিষণ্ণ মনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। তখন ছবিটি তুলেছেন।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে রিকশাচালক ফরিদের এই ছবি দেখে ও ঘটনা শুনে স্থানীয় সাংসদ হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন তাঁকে কাল শুক্রবার জয়পুরহাটের বাসায় ডেকেছেন।

জয়পুরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম আলমগীর জাহান বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের মসজিদ মার্কেটের জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি পুরোনো রিকশা চুরি হয়েছে। এ ঘটনায় চুরি যাওয়া রিকশার মালিক থানায় কোনো অভিযোগ করেননি। তবে পুলিশ চুরি যাওয়া রিকশাটি উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন