বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, স্বামী নিজাম উদ্দিনের সঙ্গে সামসুন্নাহার ঢাকায় থাকতেন। অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর মাসখানেক আগে বাবার বাড়িতে আসেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবার ভোররাত চারটার দিকে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে স্বজনেরা তাঁকে বরগুনা সদর উপজেলার গৌরিচন্না ইউনিয়নের মহাসড়ক এলাকায় অবস্থিত কুয়েত প্রবাসী হাসপাতালে ভর্তি করান। সেখানে প্রসূতি চিকিৎসক সাফিয়া পারভীনের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা নেন। আজ সকাল সাড়ে সাতটার দিকে স্বাভাবিক প্রসবে এক ছেলে ও দুই মেয়ের জন্ম দেন তিনি।

সামসুন্নাহারের ভাই আহাদুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, ‘একসঙ্গে এক ভাগনে ও দুই ভাগনির মামা হয়েছি। আমাদের পরিবারের সবাই খুব খুশি। বোনের তিন নবজাতকের জন্মের খবর ছড়িয়ে পড়লে সকাল থেকে বহু মানুষ দেখতে আসছেন, ছবি তুলছেন। আমার বোন এবং ভাগনে-ভাগনিরা সুস্থ আছেন।’

প্রসূতি চিকিৎসক সাফিয়া পারভীন প্রথম আলোকে বলেন, প্রথমে আলট্রাসনোগ্রামের মাধ্যমে বাচ্চার কথা রোগীর স্বজনদের জানান তিনি। তবে জন্মের পর দেখতে পান নবজাতক তিনজন। অস্ত্রোপচার ছাড়াই স্বাভাবিক প্রসবের মাধ্যমে তিন নবজাতকের জন্ম হয়। মা ও নবজাতকেরা সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন