বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল চা–বাগানের সাপ্তাহিক মজুরি নিয়ে শ্যামলালের স্ত্রী চা–শ্রমিক শনিছড়ি রবিদাস (৩৮) বাড়ি ফিরছিলেন। পথে শ্যামলাল মজুরির ৯০০ টাকা থেকে কিছু টাকা দাবি করেন। স্ত্রী তাঁকে ২০০ টাকা দিলে তিনি আরও কিছু টাকা দাবি করেন। টাকা না দেওয়ায় তিনি হাতে থাকা ২০০ টাকা ছিঁড়ে ফেলেন। এ ঘটনায় তর্কবিতর্কের একপর্যায়ে ছেলে নন্দলাল রবিদাস লাঠি দিয়ে বাবা শ্যামলালের মাথায় আঘাত করেন। এতে শ্যামলাল মাটিতে পড়ে যান। পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

আলীনগর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য তাজ উদ্দীন এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

খবর পেয়ে রাতেই কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়ারদৌস হাসানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যায়। লাশ উদ্ধার করে কমলগঞ্জ থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। ওসি বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন