default-image

করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে সুলতান আহমদ (৬৭) নামের এক রোহিঙ্গা মারা গেছেন। গত রোববার রাতে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ওই রোহিঙ্গার মৃত্যু হলেও তা প্রকাশ পায় গতকাল সোমবার রাতে ক্যাম্পে দাফনের পর। তিনি টেকনাফের শালবাগান আশ্রয়শিবিরের (২৬ নম্বর) বি-৬ ব্লকের বাসিন্দা ছিলেন। এর আগে করোনায় উখিয়ার বিভিন্ন আশ্রয়শিবিরে ১০ জন রোহিঙ্গার মৃত্যু হলেও টেকনাফ শিবিরে এটাই প্রথম মৃত্যু।

এই আশ্রয়শিবিরের বাসিন্দা কবির আহমদ ও সাজেদা বেগম বলেন, এত দিন এই শিবিরে করোনায় কেউ মারা যায়নি। বৃদ্ধের জানাজা ও দাফনের পর করোনায় একজনের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে আতঙ্ক দেখা দেয়। এই শিবিরে স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই। অধিকাংশ রোহিঙ্গা মুখে মাস্ক পরে না।

করোনায় একজনের মৃত্যুর খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন শিবিরের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা কক্সবাজার ১৬ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) অধিনায়ক ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম তারিক। তিনি বলেন, নিহত সুলতান আহমদ অন্তত এক মাস আগে পেটের টিউমারের চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। চিকিৎসাকালে তিনি করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হন।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) শাহীন মো. আবদুর রহমান চৌধুরী বলেন, রোববার রাত নয়টার দিকে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক সুলতান আহমদকে মৃত ঘোষণা করেন। গতকাল বিকেলে টেকনাফের শালবন আশ্রয়শিবিরে নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাঁর দাফন সম্পন্ন করা হয়।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন