default-image

চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীতে যাত্রীবাহী নৌকা ডুবে পোশাক কারখানার এক কর্মকর্তা মারা গেছেন। এ ঘটনায় নিখোঁজ রয়েছেন এক ব্যক্তি।

আজ মঙ্গলবার সকাল পৌনে আটটার দিকে কর্ণফুলী নদীর দক্ষিণ পাড়ের ১২ নম্বর ঘাটের অদূরে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। পাথরবোঝাই বার্জের সঙ্গে ধাক্কা লেগে যাত্রীবাহী ইঞ্জিনচালিত নৌকাটি ডুবে যায়।

পুলিশ বলছে, ডুবে যাওয়া নৌকাটিতে ৩০ থেকে ৩৫ জন যাত্রী ছিলেন। এর মধ্যে একজন মারা গেছেন। এ ছাড়া একজন বাদে সবাইকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

মারা যাওয়া ব্যক্তির নাম সৈকত বড়ুয়া (৩০)। তিনি নগরীর ইপিজেড এলাকার একটি তৈরি পোশাক কারখানার কর্মকর্তা ছিলেন। তাঁর বাড়ি কর্ণফুলী উপজেলার শাহমীরপুর এলাকায়। বাবার নাম প্রশান্ত বড়ুয়া।

বিজ্ঞাপন

যে ব্যক্তি নিখোঁজ রয়েছেন, তাঁর নাম-পরিচয় জানা যায়নি। তাঁর সন্ধানে ডুবুরিরা কাজ করছেন বলে জানান ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক নিউটন দাশ।

নৌকাডুবির ঘটনায় জীবিত উদ্ধার হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে দুজন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) ভর্তি আছেন। তাঁরা হলেন ইব্রাহীম খলিল (৪০) ও সালাউদ্দিন (৩৯)।

কর্ণফুলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দুলাল মাহমুদ বলেন, কর্ণফুলী উপজেলার ১২ নম্বর ঘাট থেকে যাত্রী নিয়ে পতেঙ্গার দিকে যাচ্ছিল নৌকাটি। কিছু দূর যাওয়ার পর নদীতে পাথরবোঝাই বার্জের সঙ্গে ধাক্কা লাগলে নৌকাটি ডুবে যায়। এই ঘটনায় তিনজনকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তাঁদের চমেক হাসপাতালে নেওয়ার পর সেখানে একজনকে মৃত ঘোষণা করা হয়। একজন এখনো নিখোঁজ।

এর আগে গতকাল সোমবার ভোরে কর্ণফুলী নদীর মোহনার কাছে ভোগ্যপণ্যবাহী একটি ট্রলার ডুবে গিয়ে তিনজন নিখোঁজ হন। তাঁদের এখনো উদ্ধার করা যায়নি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন