বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আবুল হোসেন ও তাঁর সন্ত্রাসী বাহিনী গোপন বৈঠকের মাধ্যমে বিশৃঙ্খলা তৈরি করাসহ আজিজুর রহমানের কর্মী-সমর্থকদের খুন, গুম ও হাত–পা ভেঙে দেওয়া হবে বলে হুমকি–ধমকি দিচ্ছেন। সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে বিতর্কিত করতে নলতা ইউপির নৌকার প্রার্থী আবুল হোসেন ও তাঁর বাহিনীর সদস্যরা নানা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এরই অংশ হিসেবে তাঁরা বৃহস্পতিবার ভোররাতে নলতা ইউনিয়নের পশ্চিম পাইকাড়া এলাকায় নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী কার্যালয়ে কথিত অগ্নিসংযোগ করে নতুন নাটকের জন্ম দিয়েছেন।

কথিত এই অভিযোগে আজিজুর রহমান ও তাঁর কর্মী-সমর্থকদের নামে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দায়েরের চেষ্টা চালাচ্ছেন নৌকার প্রার্থী আবুল হোসেন। সংবাদ সম্মেলন থেকে আজিজুর রহমান এ সময় বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিতে পরিকল্পিতভাবে আগুন জ্বালানো আবুল হোসেন ও তাঁর সন্ত্রাসী বাহিনীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাসহ ২৮ নভেম্বর নলতায় অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন সম্পন্ন করার জন্য প্রধানমন্ত্রী, আইজিপি, ডিআইজি, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কৃর্তপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

আবুল হোসেন জানান, বিএনপি-জামায়াতের নাশকতা মামলার আসামিরা জামিনে এলাকায় এসে স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুর রহমানের পক্ষ নিয়ে নৌকার কর্মী-সমর্থকদের হুমকি–ধমকি দিচ্ছেন। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায়ও তাঁরা নলতার কাশিবাটি গ্রামের আওয়ামী লীগের কর্মীদের নৌকার পেছনে না ছুটতে হুমকি দেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, রাতের আঁধারে নৌকার অফিসসহ বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিতে আগুন লাগিয়ে দিয়েছেন প্রতিপক্ষের কর্মী-সমর্থকেরা।

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তফা জানান, বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রীর ছবিসহ নৌকার নির্বাচনী অফিসে আগুন লাগার ঘটনায় রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবুল হোসেন একটি অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন