কাহালু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমবার হোসেন সড়ক দুর্ঘটনায় এক আইনজীবীর মারা যাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেন। ওসি বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, সকালে বগুড়া শহরের বাসা থেকে মোটরসাইকেলে মাহবুবুর রহমান গ্রামের বাড়ি দুপচাঁচিয়ায় যাচ্ছিলেন। পথে বিবিরপুকুর রহিম ফিলিং স্টেশন এলাকায় বিপরীতমুখী একটি বালুবাহী ট্রাক সামনে থেকে তাঁর মোটরসাইকেলকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে তিনি নিহত হন। দুর্ঘটনার পরপরই ট্রাকচালক পালিয়ে গেলেও স্থানীয় লোকজন তাঁর সহকারী আনিছুর রহমানকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন।

সড়ক দুর্ঘটনায় পা-বিচ্ছিন্ন হয়ে বাসচালকের সহকারী নিহত

শাজাহানপুর উপজেলায় যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে বাসচালকের সহকারী সুভাস রায় (৩৮) নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত পাঁচজন বাস যাত্রী। গতকাল শুক্রবার রাত ১১টার দিকে রংপুর-ঢাকা মহাসড়কের শাজাহানপুর উপজেলার নয়মাইল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

হাইওয়ে পুলিশ জানিয়েছে, দিনাজপুর থেকে যাত্রা করা হানিফ এন্টারপ্রাইজের একটি দূরপাল্লার কোচ যাত্রী নিয়ে গতকাল রাতে চট্টগ্রামে যাচ্ছিল। রংপুর-ঢাকা মহাসড়কের বগুড়ার নয়মাইল এলাকায় পৌঁছালে গতকাল রাত ১১টার দিকে বিপরীত দিক থেকে আসা পণ্যবাহী একটি ট্রাকের সঙ্গে বাসটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে বাসটি দুমড়েমুচড়ে যায়। এতে দরজার কাছে থাকা চালকের সহকারী সুভাস রায়সহ অন্তত পাঁচজন আহত হন। দুর্ঘটনায় সুভাস রায় রায়ের পা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

হাইওয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন তাৎক্ষণিক আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

এ বিষয়ে হাইওয়ে পুলিশের বগুড়ার শেরপুর ফাঁড়ির ইনচার্জ এ কে এম বানিউল আনাম বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত বাস ও ট্রাক হাইওয়ে পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। আহত সুভাস রায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে মারা যান। তাঁর লাশ শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। এ বিষয়ে থানায় মামলা হয়েছে। সুভাস রায়ের বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলার বেলকুচি উপজেলা সদরে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন