ডেলনি হাউস

১৮১৫ সালে ব্যবসা–বাণিজ্য সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ফ্রান্সের ভিলেজ অব ডেলনি থেকে কুমিল্লা অঞ্চলে আসেন পিয়ারে জোসেফ ডেলনি। ওই সময়ে ফ্রান্স ও ইংল্যান্ডের সপ্তবর্ষব্যাপী যুদ্ধ হয়। ওই যুদ্ধে ফ্রান্স পরাজিত হয়। পেশায় নৌ কমান্ডার ডেলনি ওই সময়ে দেশত্যাগ করে এই অঞ্চলে আসেন। এরপর তিনি ভুলুয়া (নোয়াখালী) ও সন্দ্বীপ অঞ্চলের জমিদারি কেনেন। পরে তিনি কুমিল্লা নগরের আদালত সড়ক এলাকার পূর্ব পাশে ১৭ একর জায়গার ওপর একতলা বাড়ি নির্মাণ করেন। বাড়িটি ১০ হাজার বর্গফুট। উচ্চতা ১৬ ফুট। এতে ১৬টি কক্ষ, ৫২টি দরজা ও ৪৫টি জানালা আছে। ১৬০ বছরের পুরোনো সচল একটি বৈদ্যুতিক পাখার রেগুলেটর (জিইসি ব্র্যান্ডের) আছে। এখন এই বাড়ির আয়তন সাড়ে ৯ একর। বাড়ির ভেতরে ধানিজমিও আছে। আছে শাকসবজিও। বাড়ির ভেতরে দুটি পুকুর। পাকিস্তান আমলে এই বাড়ির লোকদের ব্যক্তিগত এরোপ্লেন ছিল। নাম পাইপার কাব। কুমিল্লা শহরের প্রথম মোটরগাড়ি ছিল তাঁদের। (ইস্ট বেঙ্গল টিপরা-১)। বাংলাদেশে প্রথম ১৯৩৯ সালে এই বাড়িতে রিকশা আনা হয়।