default-image

কুমিল্লা রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলের (ইপিজেড) জুতা তৈরির একটি কারখানার একজন প্রশাসনিক কর্মকর্তাকে দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে হত্যা করেছে। আজ শুক্রবার বিকেলে ইপিজেডের ফটকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তির নাম খায়রুল বাশার সুমন (৩৫)। তিনি কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার গলিয়ারা উত্তর ইউনিয়নের মান্দারি গ্রামের আবদুল মমিন মাস্টারের ছেলে। বছরখানেক আগে তিনি বিয়ে করেন।

ইপিজেড সূত্রে জানা গেছে, কুমিল্লা ইপিজেডের জিং চ্যাং সুজ বিডি কারখানার মানবসম্পদ বিভাগে প্রশাসনিক কর্মকর্তার দায়িত্বে ছিলেন খায়রুল বাশার। সম্প্রতি ওই কারখানায় কিছু কর্মীকে ছাঁটাই করা হয়। এতে খায়রুলের ওপর ক্ষিপ্ত হন কারখানার কিছু শ্রমিক। আজ শুক্রবার বিকেল ৪টা ৪৫ মিনিটে কারখানা থেকে বের হয়ে তিনি বাড়ি ফিরছিলেন। ইপিজেড ফটকে পৌঁছালে একদল দুষ্কৃতকারী তাঁর ওপর হামলা চালায়। পরে তাঁকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

সদর দক্ষিণ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে যতটুকু জানতে পেরেছি, ইপিজেডে কর্মী ছাঁটাইকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে।’

বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেপজা) কুমিল্লার মহাব্যবস্থাপক মো. জিল্লুর রহমান বলেন, বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে। পুলিশ তদন্ত করছে। কারখানা কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে পুলিশকে সহযোগিতা করবে। কী কারণে হত্যাকাণ্ড হয়েছে, তা জানা যায়নি।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন