default-image

পটুয়াখালীর কুয়াকাটা সমুদ্রসৈকত এলাকায় বিদ্যুৎ–সংযোগের লাইন ছিঁড়ে পানিতে পড়লে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে লাল মিয়া (১৭) নামের এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। ওই কিশোরকে বাঁচাতে গিয়ে তার মা চান বানু (৫৫) ও ফুফাতো ভাই আলী আকবর (১৩) বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে আহত হয়। তাদের বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে জানা গেছে, সৈকতের জিরো পয়েন্ট এলাকায় লাল মিয়ার বাবা মো. শাহ আলম মিয়ার মাছ ভাজার দোকান আছে। এ দোকানের বিদ্যুতের লাইন ছিঁড়ে পানিতে পড়ে যায়। লাল মিয়া ছিঁড়ে পড়া বিদ্যুতের লাইনে হাত দিলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। তাকে রক্ষা করতে গিয়ে দুজন বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। পরে স্থানীয় লোকজন তিনজনকে উদ্ধার করে কুয়াকাটা ২০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে নিয়ে গেলে লাল মিয়াকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, লাল মিয়ার লাশের ময়নাতদন্তের জন্য পটুয়াখালীতে পাঠানো হয়েছে। লাল মিয়ার বাড়ি কুয়াকাটা পৌর এলাকার ৩ নম্বর ওয়ার্ড এলাকায়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0