default-image

কুয়াশার কারণে চট্টগ্রাম থেকে ১ হাজার ৬ জন রোহিঙ্গাকে নোয়াখালীর ভাসানচরে পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়নি। তাঁদের চট্টগ্রামের বোট ক্লাবে আনা হয়নি। রাখা হয়েছে বিএফ শাহীন কলেজে।

নৌবাহিনীর সদস্যরা জানান, আজ মঙ্গলবার সকাল নয়টার দিকে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। তবে কুয়াশার কারণে প্রক্রিয়া শুরু করতে দেরি হচ্ছে।

গতকাল সোমবার চট্টগ্রাম থেকে ২ হাজার ১০ জন রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে পাঠানো হয়। এর আগে তিন দফায় ভাসানচরে স্থানান্তর করা হয়েছে ৬ হাজার ৬৮৮ জন রোহিঙ্গাকে।

বিজ্ঞাপন
default-image

এর আগে গত রোববার ভাসানচরে স্থানান্তরের উদ্দেশ্যে কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামে পাঠানো হয় ২ হাজার ১০ জন রোহিঙ্গাকে।

তাঁদের মধ্যে কয়েকজন রোহিঙ্গা জানান, কক্সবাজারের তুলনায় ভাসানচরে সুযোগ-সুবিধা অনেক বেশি। উন্নত জীবনযাপনের কথা শুনে তাঁরা ভাসানচর যাচ্ছেন।
ভাসানচর আশ্রয়ণ প্রকল্পে এক লাখ রোহিঙ্গাকে সরকারের স্থানান্তরের পরিকল্পনা আছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন