বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সরেজমিনে সিলেট সিটি করপোরেশন এলাকার পাঁচটি টিকাকেন্দ্র ঘুরে টিকাগ্রহীতাদের ভিড় দেখা গেছে। এর মধ্যে বেশি ভিড় লক্ষ্য করা গেছে সিলেট সিটি করপোরেশনের চৌকিদেখি এলাকার ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফরহাদ হোসেন চৌধুরীর কার্যালয় এবং ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রেজওয়ান আহমদের কার্যালয়ের সামনে। টিকাকেন্দ্রগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে একে ওপরের গায়ের সঙ্গে গা ঘেঁষে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। ভিড়ের মধ্যে দাঁড়িয়ে থাকা অনেকেরই মাস্ক ব্যবহার করতে দেখা যায়নি।

সিলেট নগরের বড়বাজার এলাকার ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর রেজওয়ান আহমদের কার্যালয়ে স্বেচ্ছাসেবী সাবু খান জানান, ‘২৮ ও ২৯ সেপ্টেম্বর প্রায় ৮৫০ জন করোনার গণটিকার প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন। আজ বেলা ১টা পর্যন্ত ৩৫০ জন টিকা নিয়েছেন। আমাদের কাছে পর্যাপ্তসংখ্যক টিকা আছে। যতক্ষণ লাইনে মানুষ থাকবেন, ততক্ষণ টিকা কার্যক্রম চলবে।’

নগরের হাউজিং এস্টেট এলাকায় ৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কার্যালয়ের গিয়ে দেখা গেছে জটলা। ভেতরে টিকাকেন্দ্রে শুধু একজন করে টিকাগ্রহীতাদের প্রবেশ করানো হচ্ছিল। টিকাকেন্দ্রের ভেতরে টিকাগ্রহীতাদের জাতীয় পরিচয়পত্র এবং প্রথম ডোজের টিকার সনদ দেখেই প্রবেশ করানো হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন কাউন্সিলরের কার্যালয়ের সচিব সজল সিনহা। তিনি বলেন, এ কেন্দ্রে প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছিলেন ৩৫০ জন। আজ এক দিনেই ৩৫০ জনকে দ্বিতীয় ডোজের টিকা দেওয়া হবে।

সিলেট নগরের চৌকিদেখি এলাকায় ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফরহাদ হোসেন চৌধুরীর কার্যালয়ের সামনে নারী–পুরুষের দীর্ঘ সারি দেখা গেছে। টিকা নেওয়ার জন্য দাঁড়িয়ে থাকা চৌকিদেখি এলাকার বাসিন্দা রহমত মিয়া বলেন, ‘২৮ সেপ্টেম্বর টিকা নিয়েছিলাম। আজ দ্বিতীয় ডোজের জন্য এসেছি। প্রথম ডোজের দিন এত ভিড় না থাকলেও আজ বেশি ভিড়।’

default-image

সিলেট সিটি করপোরেশনের গণসংযোগ কর্মকর্তা আলিম শাহ বলেন, ‘২৮ ও ২৯ সেপ্টেম্বর সিটি করপোরেশন এলাকায় গণটিকা কার্যক্রমে যাঁরা প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন, আজ তাঁদের দ্বিতীয় ডোজের টিকা দেওয়া হচ্ছে। টিকাকেন্দ্রেগুলোতে সিনোফার্মের টিকা দেওয়া হচ্ছে। আমরা কেন্দ্রগুলোতে প্রথম ডোজের টিকাগ্রহীতাদের হিসাব অনুযায়ী টিকা পৌঁছি দিয়েছি। দুই দিনের টিকা কার্যক্রম এক দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। এতে টিকা না পেয়ে ফিরে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। যাঁরা আজ টিকা দিতে পারবেন না, তাঁদের ব্যাপারে সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্যকর্মকর্তা পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন