default-image

করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) সংক্রমিত হয়ে গুরুতর অসুস্থ রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ এ কে এম নূরুন্নবীকে সরকারি উদ্যোগে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আজ শনিবার বেলা সাড়ে তিনটায় তাঁকে রংপুর ক্যান্টনমেন্ট থেকে ঢাকায় নেওয়া হয়। তাঁকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়েছে বলে রংপুর মেডিকেল কলেজ সূত্র জানায়।

রংপুর মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ মাহফুজার রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে প্রথম আলোকে বলেন, সরকারি উদ্যোগে অধ্যক্ষকে হেলিকপ্টারে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। হেলিকপ্টারটি রংপুর ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় অবতরণ করে বেলা ৩টা ২০ মিনিটে। এরও আগে অ্যাম্বুলেন্সে করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে তাঁকে ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় নেওয়া হয়। সাড়ে তিনটার দিকে তাঁকে নিয়ে হেলিকপ্টারটি ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়।

বিজ্ঞাপন

উপাধ্যক্ষ জানান, আজ সকালে করোনার নমুনা পরীক্ষা করার পর অধ্যক্ষ নূরুন্নবীর কোভিড-১৯ পজিটিভ ধরা পড়ে। এ ছাড়া তাঁর সিটি স্ক্যানও করা হয়। অধ্যক্ষ নূরুন্নবী সাত দিন থেকে জ্বর, শ্বাসকষ্ট, মাথা, শরীর ব্যথাসহ করোনার উপসর্গে ভুগছিলেন। তিনি বাড়িতে থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। এ ছাড়া তাঁর ব্যাকপেইন, ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপ রয়েছে। তাঁর শ্বাসকষ্টের সমস্যাও হচ্ছে। সেই সঙ্গে তাঁর হৃদ্‌যন্ত্রে রিং পরানো আছে। এসব কারণে জরুরি ভিত্তিতে তাঁকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

রংপুর মেডিকেল কলেজ সূত্র জানায়, অধ্যক্ষ নুরুন্নবী রংপুর মেডিকেল কলেজে স্থাপিত কোভিড-১৯ রোগীর নমুনা পরীক্ষার ল্যাব পরিচালনা কমিটির সমন্বয়ক। তিনি একই সঙ্গে কলেজের চর্ম ও যৌন বিভাগের বিভাগীয় প্রধানও। তিনি নিয়মিত রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ার্ডে রোগী দেখতেন। কিন্তু সাত দিন থেকে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়ে বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন।

মন্তব্য করুন