default-image

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় নৈতম চন্দ্র বর্মণ ওরফে সাগর (২৪) নামের এক তরুণ ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ফজলে রাব্বী (২২) নামের অপর এক তরুণকে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন স্থানীয় লোকজন।

বুধবার বিকেল সোয়া পাঁচটায় উপজেলার চন্দনবাড়ি ইউনিয়নের বলরাম বাজারে এ ঘটনা ঘটে। আহত নৈতম চন্দ্র বর্মণ একই ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া এলাকার ধীরেন্দ্র নাথ বর্মণের ছেলে। তিনি পেশায় ট্রাক্টরচালক। আটক ফজলে রাব্বী একই ইউনিয়নের বানিয়াপাড়া এলাকার আছিম উদ্দিনের ছেলে।

বিজ্ঞাপন

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে চন্দনবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ভূপাল চন্দ্র বর্মণ বলেন, নৈতম চন্দ্র বর্মণ বুধবার বিকেলে বাড়ির পাশের বলরাম বাজারের পঞ্চমাথায় যান। সেখানে তিনি কিছু তরুণের ক্যারম খেলা দেখছিলেন। তিনি নিজেও একবার খেলেন। পরে তিনি খেলতে না চাইলে ঝগড়া বাধে সেখানে থাকা ফজলে রাব্বীর সঙ্গে। একপর্যায়ে ফজলে রাব্বী তাঁর সঙ্গে থাকা অপর তরুণ সোহাগের (২৪) কাছে থাকা একটি ছুরি নিয়ে নৈতম চন্দ্রের ওপর আক্রমণ করেন। ছুরিটি তাঁর পেটে ঢুকে যায় এবং ডান হাতের কনুই কেটে যায়। তাঁর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে ফজলে রাব্বীকে আটক করেন। এরপর খবর দেওয়া হয় বোদা থানা-পুলিশকে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ফজলে রাব্বীকে আটক করে। এলাকাবাসী আহত নৈতমকে বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন।

বোদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু সাঈদ চৌধুরী বলেন, ছুরিকাঘাতের ঘটনায় অভিযোগ ওঠা ফজলে রাব্বীকে আটক করে থানায় রাখা হয়েছে। আহত ব্যক্তির পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন