default-image

খুলনার ডুমুরিয়ার আছমাউল মোড়ল ওরফে জীবন (২৮) হত্যা মামলায় চারজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। সোমবার দুপুরে খুলনা বিভাগীয় স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক মো. জিয়া হায়দার ওই রায় ঘোষণা করেন।

আছমাউল মোড়ল ওই উপজেলার বাগদাড়ি নোয়াকাঠি এলাকার জহুরুল হক মোড়লের ছেলে। তিনি ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালাতেন। ২০০৭ সালের ২০ অক্টোবর সকালে বুকে ছুরিকাঘাত অবস্থায় তাঁর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন শুভংকর রায় (২৫), সুধাময় বালা ওরফে সুধাবৃন্দ বালা (৩০), অমিত বিশ্বাস (২৮) ও দীপংকর রায় (২৮)। তাঁদের সবার বাড়ি ডুমুরিয়ার বান্দা উলোরডাঙ্গা নামক স্থানে। রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। মামলায় এজাহারভুক্ত ৮ আসামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আদালত সূত্রে জানা গেছে, আসামিরা মোটরসাইকেল নিয়ে ডুমুরিয়ার রংপুরে যাওয়ার কথা বলে ১৯ অক্টোবর রাতে আছমাউলকে মোবাইল ফোনে ডেকে নেন। এরপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। পরের দিন ২০ অক্টোবর ডুমুরিয়ার খড়িয়ার ওয়াবদার কাছ থেকে বুকে ছুরিবিদ্ধ অবস্থায় আছমাউলের লাশ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় আছমাউলের ভাই হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে ১২ জনকে আসামি করে ডুমুরিয়া থানায় মামলা করেন। ২০০৮ সালের ৬ আগস্ট তৎকালীন ডুমুরিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) লস্কর জায়াদুল হক আসামিদের অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছিলেন।

মন্তব্য করুন