খুলনা করোনা হাসপাতালে ১০ দিনে ১৬ জনের মৃত্যু

বিজ্ঞাপন
default-image

খুলনার করোনা হাসপাতালে (ডায়বেটিক হাসপাতাল) চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ দিনে ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে গত ৫ দিনে মারা গেছেন ১০ জন। বৃহস্পতিবার ওই হাসপাতাল সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

হাসপাতালটির চিকিৎসকেরা বলছেন, কোভিড-১৯ নিয়ে এখন অনেকেই অবহেলা করছেন। মানুষের মধ্যে সচেতনতাও কমে গেছে। এ কারণে কোভিডে আক্রান্ত ব্যক্তিরা প্রাথমিকভাবে বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ ছাড়া রোগীর যখন শ্বাসকষ্ট বা জটিল অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে, তখনই স্বজনেরা রোগীকে নিয়ে ছুটছেন হাসপাতালে। ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে যাচ্ছে। এ কারণেই চিকিৎসা দিয়েও অনেক সময় রোগী বাঁচানো সম্ভব হচ্ছে না।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

হাসপাতাল সূত্র জানায়, বিভাগের প্রায় সব জেলা থেকেই হাসপাতালে রোগী আসছেন। গত ১৯ এপ্রিল থেকে ওই হাসপাতালে রোগী ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়। বুধবার রাত ১২টা পর্যন্ত সেখানে চিকিৎসা নিয়েছেন মোট ৮৫৬ জন। এর মধ্যে রোগী মারা গেছেন ১০৯ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭১০ জন। ১০০ শয্যার ওই হাসপাতালে বর্তমানে চিকিৎসাধীন ৩৭ জন। এর মধ্যে ৯ জনই আছেন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ)।

খুলনা করোনা হাসপাতালের সমন্বয়ক চিকিৎসক শেখ ফরিদ উদ্দিন বলেন, আগে জ্বর বা উপসর্গ দেখা দিলেই ভয় পেয়ে লোকজন কোভিড পরীক্ষা করাতেন। এখন ওই মনোভাব অনেকটা কমে গেছে। আগে ভয় পেয়ে আক্রান্ত হলেই হাসপাতালে ছুটতেন, এখন শারীরিক অবস্থা খারাপ হওয়ার পর রোগী হাসপাতালে আসছেন। শুরু থেকেই যদি কোভিডে আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসা করা যায়, তাহলে রোগী দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন