default-image

রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলায় নতুন বিদ্যুৎ–সংযোগ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে তৌহিদুল ইসলাম (২৫) নামের এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে। আজ সোমবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার কোলকোন্দ ইউনিয়নের কামারপাড়া চারমাথা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

তৌহিদুল একই উপজেলার মর্ণেয়া ইউনিয়নের খলিফাবাজার এলাকার টেক্কা মিয়ার ছেলে। তিনি বিদ্যুতের লাইনম্যান হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করতেন। এদিকে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে গঙ্গাচড়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের সহায়তায় বেলা একটার দিকে তাঁর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

স্থানীয় ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, লাইনম্যান তৌহিদুল কোমরে বেল্ট পরা অবস্থায় বৈদ্যুতিক খুঁটিতে উঠে সংযোগের কাজ করছিলেন। আকস্মিকভাবে তারের ওপর জড়িয়ে পড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ঘটনাস্থলে তাঁর মৃত্যু হয়। পরে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কাজের সময়ে বিদ্যুৎ অফিস থেকে লাইন বন্ধ করা ছিল না।

বিজ্ঞাপন

এ ব্যাপারে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১-এর (গঙ্গাচড়া) এ জি এম প্রমদ কুমার দে জানান, ওই এলাকায় বিদ্যুতের নতুন সংযোগ স্থাপনের কাজ পায় মেসার্স নাহার কন্সট্রাকসন নামের এক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লাইনম্যান তৌহিদুল আজ সকালে বিদ্যুতের খুঁটিতে উঠে কাজ করছিলেন। এ সময় ওই দুর্ঘটনা ঘটে। পল্লী বিদ্যুতের সুপারভাইজার ফজলু মিয়ার দায়িত্ব অবহেলার কারণে এমন দুর্ঘটনা ঘটেছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

তবে ফজলু মিয়ার সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাঁর ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

গঙ্গাচড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুশান্ত কুমার সরকার জানান, ঘটনাস্থল থেকে তৌহিদুলের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন