গণধর্ষণের অভিযোগে মামলা করলেন গৃহবধূ

বিজ্ঞাপন
default-image

রংপুর নগরের এক গৃহবধূ গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন উল্লেখ করে নিজেই মামলা করেছেন। মামলায় যাদু মিয়া (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে আজ সোমবার কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ওই গৃহবধূ গতকাল রোববার রাতে মহানগর হাজিরহাট থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে গণধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা করেন। সেখানে বলা হয়, ঘটনাটি গত শনিবার ঘটেছে।

পুলিশ ওই গৃহবধূকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠিয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানায়, শনিবার রাতে পূর্বপরিচিত এক ব্যক্তি কৌশলে ওই নারীকে বাসা থেকে ডেকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর একটি জঙ্গলে নিয়ে আটজন তাঁকে ধর্ষণ করে। এ সময় তিনি অচেতন হয়ে পড়েন। জ্ঞান ফেরার পর তাঁর চিৎকারে আশপাশের স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে গৃহবধূকে উদ্ধার করে তাঁর বাসায় পৌঁছে দেন।

গতকাল রাতে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁর পরিবারের সদস্যরা বিষয়টি হাজিরহাট থানায় জানান। পরে পুলিশ এসে তাঁকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করে। পুলিশ এ ঘটনায় মধ্যরাতে যাদু মিয়া নামের এক ব্যক্তিকে আটক করে। পুলিশের কাছে তিনি ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন বলে পুলিশ জানায়। তাঁকে আজ সোমবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মহানগর হাজিরহাট থানার পরিদর্শক রাজেশ কুমার চক্রবর্তী প্রথম আলোকে বলেন, গতকাল রাতে ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে হাজিরহাট থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে আটজনকে আসামি করে একটি মামলা করেছেন। এর মধ্যে তিনি চারজনকে চিনতে পেরেছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন