বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা। তাঁরা মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে বহিষ্কারের দাবি জানান।

এ নিয়ে প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে গাজীপুরের রাজনীতি উত্তপ্ত। এ নিয়ে গাজীপুরে মেয়র-সমর্থকদের সঙ্গে বিরোধীদের সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটেছে।

অবশ্য শুরু থেকেই এই ভিডিওকে সাজানো ও বানোয়াট বলে আসছেন মেয়র জাহাঙ্গীর। তিনি আজ প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমি শোকজ নোটিশ পেয়েছি। ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওর পরিপ্রেক্ষিতে আমাকে এ নোটিশ দেওয়া হয়েছে। নোটিশে দলের ভাবমূর্তি নষ্টের কথা বলা হয়েছে। এটি (ভিডিও) আমার বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা প্রচারণা। আমার ইমেজ নষ্ট করতেই এটি করা হয়েছে।’

জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘আমি ১৫ দিনের মধ্যে নোটিশের যথাযথ জবাব দেব। তারপর প্রধানমন্ত্রীসহ দল যে সিদ্ধান্ত নেয়, তা মাথা পেতে নেব।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন