ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় পুলিশ ও হেফাজত নেতা–কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। শুক্রবার দুপুরে।
ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় পুলিশ ও হেফাজত নেতা–কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। শুক্রবার দুপুরে।ছবি: প্রথম আলো

গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় হেফাজতে ইসলামের সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ার সেল নিক্ষেপ করে তাঁদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ ঘটনায় পুলিশ ও হেফাজতের কর্মী, সমর্থকসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। আহত ব্যক্তিদের স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, হেফাজতে ইসলামের পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে জুমার নামাজের পর চান্দনা চৌরাস্তা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় অবস্থান নেন সমর্থকেরা। এ সময় পুলিশ তাঁদের বাধা দিলে তাঁরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। হেফাজতের কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোড়ে। তাঁদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ টিয়ার সেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। প্রায় আধঘণ্টা পর কর্মী–সমর্থকদের ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণ নেয় পুলিশ। এতে পুলিশসহ অন্তত ২০ হেফাজত কর্মী আহত হন। তাঁদের স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এ সময় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক আধঘণ্টা বন্ধ ছিল।

গাজীপুর মহানগর পুলিশের উপকমিশনার জাকির হাসান বলেন, হেফাজতের কর্মীরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করেন। তাঁদের মহাসড়ক ছেড়ে যেতে বললে তাঁরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুড়তে থাকে। পরে তাঁদের সঙ্গে পুলিশের পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পুলিশ শতাধিক টিয়ার সেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে তাঁদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। প্রতিপক্ষের ইটপাটকেলে কমপক্ষে আটজন পুলিশ আহত হয়েছে। তাদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন