default-image

গ্রেপ্তারের পর নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের সাদ্দাম বাহিনীর প্রধান সাদ্দাম হোসেনের (২৯) কাছ থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল সোমবার দিবাগত রাত পৌনে তিনটার দিকে সাদ্দামের দেখিয়ে দেওয়া তাঁর কোটরা মহব্বতপুর গ্রামের একটি ঘর থেকে একটি পাইপগান ও তিনটি কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানায়, এর আগে সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে গোপালপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে সাদ্দাম হোসেনকে গ্রেপ্তার করে থানা-পুলিশের একটি দল। গ্রেপ্তার সাদ্দামের বিরুদ্ধে বেগমগঞ্জ থানায় হত্যা, ধর্ষণ, অপহরণ, অস্ত্র মামলাসহ পাঁচটি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে। এ ছাড়া নতুন করে অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় গতকাল মঙ্গলবার আরও একটি অস্ত্র মামলা হয়েছে।

এর আগে ১৮ অক্টোবর প্রথম আলোয় বেগমগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে ‘এক উপজেলাতেই ২১ সন্ত্রাসী বাহিনী’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপর ওই দিন রাতেই সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করে বেগমগঞ্জ থানা-পুলিশ। প্রথম দিনের অভিযানে সন্ত্রাসী সুমন বাহিনী, কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যসহ সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান সিকদার বলেন, শিবিরের ক্যাডার সাদ্দাম গোপালপুর এলাকায় একটি সন্ত্রাসী বাহিনী পরিচালনা করে। তাঁর বিরুদ্ধে আগের পাঁচটি মামলা রয়েছে। মঙ্গলবার তাঁকে ওই সব মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়। আদালত তাঁর জামিন নামঞ্জুর করে জেলা কারাগারে পাঠান।

মন্তব্য পড়ুন 0