বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রত্যক্ষদর্শী আল আমিন বলেন, ঘন কুয়াশার কারণে ট্রলারটি দেখা যাচ্ছিল না। ট্রলারটি ডুবে গেলে আশপাশের ট্রলার যাত্রীদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে। ট্রলারটিতে শতাধিক যাত্রী ছিল। তাঁদের বেশির ভাগই পোশাকশ্রমিক। তবে লঞ্চটি দ্রুত চালিয়ে সদরঘাট নিয়ে যাওয়া হয়।

এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, যাত্রীবাহী লঞ্চের সঙ্গে ট্রলারের ধাক্কা লাগে। ঘন কুয়াশার কারণে এমন দুর্ঘটনা ঘটেছে। লঞ্চ থেকে বয়া ফেলা হলেও ঘন কুয়াশার কারণে সেগুলো দেখতে পাচ্ছিলেন না ডুবে যাওয়া ট্রলারের যাত্রীরা।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রিফাত ফেরদৌস প্রথম আলোকে বলেন, ঘন কুয়াশায় লঞ্চের ধাক্কায় ট্রলারডুবির ঘটনায় ১৫ যাত্রী এখনো নিখোঁজ। উদ্ধারকাজ চলছে। ট্রলারটি শনাক্তের চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন