মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ১৯৫০ সালে নদীতে জেগে ওঠা জমি পরবর্তী সময়ে সরকারি স্বত্ব স্বার্থ বজায় রেখে কৃষকদের মধ্যে অস্থায়ী বন্দোবস্ত দেওয়া হয়। কিন্তু চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জাওয়াদুর রহিম ওয়াদুদ হাইমচর আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন নেতা-কর্মীকে নিয়ে হাইমচরের ৪ নম্বর নীলকমল ইউনিয়নের বাহেরচরে ৪৮ দশমিক ৫২ একর (৪ হাজার ৮৫২ শতাংশ) জমি হাইমচর সাবরেজিস্ট্রারের সহযোগিতায় ভুয়া দলিল মূলে মালিকানা নেন। পরে সেখানে মাছের ঘের, গবাদিপশুর খামার ও সবজিবাগান গড়ে তোলেন। ওই এলাকার নাম বদলে নিজের নামে টিপুনগর নামকরণ করেন তিনি।

বিষয়টি ইউনিয়ন ভূমি অফিসের মাধ্যমে নিশ্চিত হওয়ার পর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে খাসজমি উদ্ধারে আদালতে মামলা করল জেলা প্রশাসন। মামলায় ক্ষতিপূরণও দাবি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দাউদ হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘আমরা সরকারি জমি উদ্ধারে সরকারি নিয়মে মামলা করেছি।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন