default-image

পঞ্চগড়ে একটি বাঁশঝাড়ের নালা থেকে মো. আলমগীর হোসেন (১৮) নামের এক অটোভ্যানচালকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। দুর্বৃত্তরা ওই ভ্যানচালককে হত্যার পর তাঁর অটোভ্যান ও মুঠোফোন নিয়ে গেছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

আজ রোববার সকালে পঞ্চগড় সদর উপজেলার সাতমেরা ইউনিয়নের বকশিগছ এলাকায় একটি বাঁশঝাড়ের নালা থেকে ওই ভ্যানচালকের লাশ উদ্ধার করে পঞ্চগড় সদর থানার পুলিশ।

নিহত আলমগীর হোসেন জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার দেবনগড় ইউনিয়নের সুরিগছ এলাকার কাইমুল ইসলামের ছেলে। আলমগীর ছোটবেলা থেকেই পঞ্চগড় সদর উপজেলার সাতমেরা ইউনিয়নের পতিপাড়া এলাকায় নানার বাড়িতে বসবাস করছিলেন।

পুলিশ, স্থানীয় লোকজন ও নিহতের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত শনিবার দিনের বেলা ভাড়ায় নেওয়া ব্যাটারিচালিত ভ্যান চালানোর জন্য বাড়ি থেকে বের হন আলমগীর। রাতে মায়ের বাড়ি সুরিগছ এলাকায় যাওয়ার কথা ছিল তাঁর।

বিজ্ঞাপন

তবে রাতে নানার বাড়ি বা মায়ের বাড়ি কোথাও ফেরেননি আলমগীর। রোববার সকালে বকশিগছ এলাকায় একটি বাঁশঝাড়ের নালায় এক যুবকের লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেন স্থানীয় লোকজন। পরে পুলিশ গিয়ে লাশটি উদ্ধারের সময় পরিবারের লোকজন আলমগীরের লাশ শনাক্ত করেন। ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।

পঞ্চগড় সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আশ্রাফুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিক সুরতহালে লাশের গলাসহ বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। রাতে যাত্রীবেশে কেউ তাঁর ভ্যানে উঠে ওই এলাকায় নিয়ে হত্যার পর অটোভ্যান ও মুঠোফোনটি নিয়ে গেছে বলে ধারণা করছেন তিনি। এ ঘটনায় নিহতের মা আলো বেগম বাদী হয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে একটি মামলা করার প্রক্রিয়া চলছে। এ ছাড়া এ ঘটনার রহস্য উদ্‌ঘাটনে পুলিশের তদন্ত চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন