বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

শিবগঞ্জের মোকামতলা ট্রাফিক ফাঁড়ি সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের পাশে ব্যস্ততম বন্দর মোকামতলা। সেখানে সোনাতলা সড়কের মোড়ে যানবাহন থামিয়ে কাগজপত্র যাচাইয়ের কার্যক্রম চালাচ্ছিল ট্রাফিক পুলিশ। কার্যক্রমের নেতৃত্বে ছিলেন ট্রাফিক সার্জেন্ট তরিকুল ইসলাম। এ সময় রংপুর থেকে বগুড়া অভিমুখী একটি মোটরসাইকেল থামার সংকেত দেয় পুলিশ।

চালক সেটিকে মহাসড়কের পাশে থামিয়ে দেন। পুলিশ সদস্যরা কাছে গিয়ে কাগজপত্র দেখতে চান। কিন্তু কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই মোটরসাইকেল ফেলে দৌড়ে পালিয়ে যান চালক। কাগজপত্র নেই বলেই মোটরসাইকেলটি ফেলে চালক পালিয়ে যান বলে প্রথমে ধারণা করছিলেন পুলিশ সদস্যরা। কিন্তু মোটরসাইকেলের আসনটি ছিল স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি উঁচু। তাতে ভিন্ন কোনো ঘটনা আছে বলে সন্দেহ হয় পুলিশের। উৎসুক মানুষের উপস্থিতিতে আসনটি খুলে দেখা যায়, নিচের অংশটি গাঁজায় ঠাসা।

মোকামতলা ট্রাফিক ফাঁড়ির সার্জেন্ট তরিকুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, মোটরসাইকেলের আসনে সাধারণত ফোম থাকে। ফোমের বদলে স্থানটা গাঁজা দিয়ে ঠাসা ছিল। এভাবে মাদকের চালান বহন করছিলেন পালিয়ে যাওয়া ব্যক্তিটি। মোটরসাইকেলটি জব্দ করে মোকামতলা পুলিশ তদন্তকেন্দ্রে হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় মোকামতলা পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের এসআই মনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে শিবগঞ্জ থানায় অজ্ঞাত আসামির বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন