বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পৌর কর্তৃপক্ষ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, হুরাসাগর নদের পাড়ের পোর্ট এলাকাটি স্থানীয় মানুষের অন্যতম বেড়ানোর জায়গা। প্রায় প্রতিদিনই বেড়া উপজেলা ছাড়া পার্শ্ববর্তী সাঁথিয়া ও শাহজাদপুর উপজেলার শত শত মানুষও পোর্ট এলাকায় উন্মুক্ত পরিবেশে সময় কাটাতে আসেন। এ ছাড়া ঈদ, পয়লা বৈশাখসহ বিভিন্ন উৎসবে সেখানে কয়েক হাজার মানুষের সমাগম হয়। তবে এলাকাবাসীর পছন্দের বেড়ানোর জায়গাটির নোংরা পরিবেশ নিয়ে অভিযোগ ছিল।

আজ সকালে বেড়ার বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের শতাধিক শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে পোর্ট এলাকার অনেকাংশই ঝকঝকে হয়ে উঠেছে। এ কাজে তাঁদের সঙ্গে পৌরসভার ১০ থেকে ১২ জন পরিচ্ছন্নতাকর্মীও যোগ দেন। পরে পৌর কর্তৃপক্ষের ময়লা বহনকারী ট্রাকের মাধ্যমে আবর্জনাগুলো সরিয়ে ফেরা হয়।

default-image

পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী রোহান বারী বলে, ‘পোর্ট এলাকাটি বেশ বড়। আমাদের লক্ষ্য পুরো এলাকাটি পরিচ্ছন্ন করে বেড়াতে আসা মানুষের কাছে আকর্ষণীয় করে তোলা। মেয়র মহোদয়সহ পৌর কর্তৃপক্ষ আমাদের সহায়তা করায় আমরা ব্যাপক উৎসাহ পেয়েছি।’

পৌরসভার মেয়র আসিফ শামস বলেন, শিক্ষার্থীরা ধারাবাহিকভাবে ভালো কাজ করে যাচ্ছে। পৌর কর্তৃপক্ষ সব সময় তাদের ভালো কাজে পাশে থাকবে। আর নির্বাচিত হওয়ার আগে থেকেই লক্ষ্য ছিল পোর্ট এলাকাটিকে মানুষের কাছে আরও আকর্ষণীয় করে তোলা। পোর্ট এলাকাটি যেন স্থায়ীভাবে পরিচ্ছন্ন থাকে সে ব্যাপারে নিয়মিত নজরদারি করা হবে।

উল্লেখ্য, বছর ছয়েক আগে সরকারি বেড়া বিপিন বিহারী উচ্চবিদ্যালয়ের কিছু শিক্ষার্থী মিলে শিক্ষার্থী সহযোগিতা সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করে। এ সংগঠনের সদস্যরা নিজেদের টিফিনের টাকা বাঁচিয়ে অসহায়দের সহায়তা দেওয়াসহ বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে। বর্তমানে এ সংগঠনের সঙ্গে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শতাধিক শিক্ষার্থী যুক্ত আছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন