বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রাম বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের সরকারি কৌঁসুলি মো. আইয়ুব খান প্রথম আলোকে বলেন, আদালত ৯৪ আসামির বিরুদ্ধে অপরাধ আমলে নিয়ে বিচার শুরুর আদেশ দিয়েছেন। আগামী ৩ অক্টোবর এই মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ শুরুর জন্য দিন রেখেছেন আদালত। মামলার তদন্ত শেষে পুলিশ ৯৬ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দিয়েছিল। দুজন মারা যাওয়ায় অভিযোগ গঠন থেকে তাঁদের অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

আদালত সূত্র জানায়, ৯৪ আসামির মধ্যে ৬৭ জন আদালতে হাজির ছিলেন, বাকিরা পলাতক। আদালতে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা আসামিদের নির্দোষ দাবি করে অভিযোগ গঠন থেকে অব্যাহতির আবেদন করেন। এ সময় রাষ্ট্রপক্ষ থেকে বিরোধিতা করে অভিযোগ গঠনের অনুরোধ করা হয়। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে সাক্ষ্য শুরুর আদেশ দেন।

মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনাল ২০১৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীকে মৃত্যুদণ্ড দেন। এর জের ধরে ওই দিন লোহাগাড়া উপজেলার জমির কমপ্লেক্স নামের একটি কমিউনিটি সেন্টার থেকে পুলিশ কনস্টেবল তারেকুল ইসলামকে ধরে নিয়ে কোপাতে থাকে দুর্বৃত্তরা। মৃত্যু নিশ্চিত করতে তাঁর মাথায় লোহার খুন্তি ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। নিহত তারেকের গ্রামের বাড়ি ফেনীতে।

ওই ঘটনায় লোহাগাড়া থানায় একটি হত্যা মামলা হয়। তদন্ত শেষে ২০১৪ সালের জানুয়ারি মাসে জামায়াত-শিবিরের ৯৬ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশ। পরে মামলাটি বিচারের জন্য দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে আসে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন