স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, শিশুদের জন্য দুই কোটি ডোজের চাহিদা ছিল। ইতিমধ্যে ৩০ লাখ টিকা পাওয়া গেছে। জন্মনিবন্ধনের মাধ্যমে শিশুদের এই টিকা দেওয়া হবে। এ জন্য শিশুদের জন্মনিবন্ধন করতে অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

টিকাদান কর্মসূচির সাফল্য তুলে ধরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের প্রায় ৭৫ ভাগ মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে, যা লক্ষ্যমাত্রার ৯৫ ভাগ। ইতিমধ্যে প্রায় ২৫ কোটি ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। যাঁরা বুস্টার ডোজ নেননি, তাঁদের দ্রুত সময়ের মধ্যে টিকা নেওয়ার পরামর্শ দেন।

ইফতার অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আবদুল লতিফ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম মহীউদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক আবদুস সালাম, পৌর মেয়র রমজান আলী, সহসভাপতি আবদুল মজিদ, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইসরাফিল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আফসার উদ্দিন সরকারসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন